ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ ফান্ড



ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ ফান্ড

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রথম ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি হিসেবে রূপান্তরের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি বাস্তবায়নের জন্য একটি চাহিদা নিরূপণ কর্মশালার মাধ্যমে কয়েকটি চ্যালেঞ্জ চিহ্নিত করা হয়েছে এবং সারা দেশ থেকে উদ্ভাবনী সমাধান আহবানে ৩টি চ্যালেঞ্জ নির্বাচন করা হয়েছে। একটি চ্যালেঞ্জ ফান্ড প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এই চ্যালেঞ্জ গুলোর উদ্ভাবনী সমাধান গ্রহণ করা হবে এবং একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের মাধ্যমে উদ্ভাবনী সমাধান সমূহ যাচাই করে চূড়ান্ত সমাধান নির্বাচন করতঃ চট্টগ্রাম বিশ্ব্ববিদ্যালয়ে পাইলটিং-এর জন্য অর্থায়ন করা হবে।

ইভেন্ট সমূহ:
  • ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি -২০১৭

ইনক্লুসিভ ইউনিভার্সিটি বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ ফান্ড - এর প্রকল্প সমূহের সংক্ষিপ্ত তালিকা


TalkingGlass
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর জন্য ক্লাস নোট এবং লেকচার অ্যাক্সিসেবল করা<br><br> অন্ধ ছাত্র-ছাত্রিদের জন্য একটি অ্যাক্সিসেবল চশমা যেটা দ্বারা খুব সহজেই ক্লাস নোট এবং বোর্ডের লেখা স্ক্যান করে শোনা যাবে।
স্টান্ডিং হুইল চেয়ার।
ব্যাটারী পাওয়ারড একটি হুইল চেয়ার যার সাহায্যে শারীরিক প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রীরা সিঁড়ি দিয়ে উঠতে ও নামতে পারবে ফলে বহুতল ভবনের বিভিন্ন তলাতে অবস্থিত ক্লাশগুলোতে সহজেই অংশগ্রহণ করতে পারবে। চেয়ারটিতে দাড়িয়ে ও বসে উভয় ভাবে চলাচলের সুবিধা থাকবে। দাড়িয়ে চলাচল করতে পারায় নোটিস বোর্ড পড়া কিম্বা লাইব্রেরির সেলফ থেকে বই নামানোর মতো কাজ গুলো তারা সহজে করতে পারবে। চেয়ারটি মোটর চালিত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনগুলো এবং আবাসিক ভবনের মধ্যে দূরত্ব বেশি হলেও সঠিক সময়ে ক্লাশে অংশগ্রহণ করতে পারবে এবং ৫ থেকে ৭ কিলোমিটার দুর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসাযাওয়া করতে পারবে।
অ্যাক্সেসেবল নোটিসবোর্ড
নোটিশের ডিজিটাল সংস্করণ আপলোড করার জন্য একটি সমাধান যার দ্বারা খুব সহজেই জরুরি নোটিশ মোবাইল এর মাধ্যমে পৌঁছে যাবে ছাত্র-ছাত্রিদের কাছে। অন্ধদের জন্য টেক্সট টু স্পীচ ব্যাবস্থা থাকবে যা নোটিশ পাওয়া মাত্রই পড়ে শোনাবে।